অন্যান্যখবরফরিদগঞ্জসারা দেশ

সাংবাদিক রেজাউলের বাবা শিক্ষাবিদ সাহাদাত হোসেনের ইন্তেকাল

স্টাফ রিপোর্টার :
দৈনিক ইলশেপাড়ের সাবেক যুগ্ম-বার্তা সম্পাদক মো. রেজাউল করিমের বাবা, হাইমচর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. সাহাদাত হোসেন ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি…………..রাজিউন)।

গতকাল সোমবার বিকেল ৫টায় ফরিদগঞ্জ উপজেলার গোবিন্দপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের বাড়িতে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুর আগে তিনি ৪/৫ মাস যাবত নানা জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

শিক্ষাবিদ মো. সাহাদাত হোসেন মৃত্যুকালে স্ত্রী, ৩ ছেলে, ৬ মেয়ে, নাতি-নাতনীসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে যান। মরহুমের জানাযা আজ মঙ্গলবার সকাল ৮টায় ফরিদগঞ্জ উপজেলার গোবিন্দপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের বাড়ি প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হবে।

জানা যায়, শিক্ষাবিদ সাহাদাত হোসেন ২০১৮ সালের ডিসেম্বর মাস থেকে জটিল রোগে আক্রান্ত হন। গত ২ জানুয়ারি চিকিৎসার জন্য রাজধানীর জাতীয় নাক, কান, গলা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে।

পরবর্তীতে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে মহাখালীস্থ জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে মার্চ মাসে তাকে বাড়ি নিয়ে আসা হয়। এপ্রিল মাসের শেষদিকে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে আবারো মহাখালীস্থ জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গত ৫ মে তাঁকে গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসা হয়।

মরহুম মো. সাহাদাত হোসেন রাজধানীর তেজগাঁও সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, জৈন্তাপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, চাঁদপুর সরকারি কারিগরি উচ্চ বিদ্যালয়, হাইমচর সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় ও হাইমচর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সুনামের সাথে শিক্ষকতা করেন।

উল্লেখ্য, মরহুম মো. সাহাদাত হোসেনের মেঝো ছেলে রেজাউল করিম দৈনিক ইলশেপাড়ের সাবেক যুগ্ম-বার্তা সম্পাদক, বাংলা টিভির সাবেক চাঁদপুর প্রতিনিধি ও চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক দপ্তর সম্পাদক।

দৈনিক ইলশেপাড়ের সাবেক যুগ্ম-বার্তা সম্পাদক মো. রেজাউল করিমের বাবা, শিক্ষাবিদ মো. সাহাদাত হোসেনের মৃত্যুতে দৈনিক ইল্শেপাড় পরিবারের পক্ষ থেকে শোক প্রকাশ করা হয়েছে। দৈনিক ইলশেপাড়ের সম্পাদক ও প্রকাশক মো. মিজানুর রহমান এবং প্রধান সম্পাদক মাহবুবুর রহমান সুমন এক শোক বার্তায় মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করেন। তারা মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন।

Sharing is caring!

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
shares
Close