খেলাধুলা

জার্সি বদলাতে বাধ্য হল বিসিবি!

অনলাইন ডেস্ক:

গোটা দুনিয়ার মতো বিশ্বকাপ নিয়ে উন্মাদনা শুরু করেছে বাংলাদেশেও। কিন্তু দলের জার্সি প্রকাশ্যে আসতেই শুরু তুমুল বিতর্ক। জার্সির ডিজাইন ও রং দেখে ক্ষোভে ফেটে পরেন ক্রিকেটপ্রেমীরা। এমনকী বিতর্ক মেটাতে আসরে নামতে হয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও। তবে পরিস্থিতিতে এতটাই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে যে শেষমেশ জার্সি বদল করতে বাধ্য হল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।

কেন বিতর্কঃ সোমবার মিরপুরের শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে সবুজ রঙের নতুন জার্সি তুলে দেওয়া হয় অধিনায়ক মাশরাফির হাতে। কিন্তু সেই নতুন জার্সির রং ছিল কেবলই সবুজ। যার সঙ্গে পাকিস্তানের জার্সির সামঞ্জস্য খুঁজে পান সমর্থকরা। আর তাতেই যত আপত্তি। কেন বাংলাদেশের জার্সি পাকিস্তানের মতো দেখতে হবে? জার্সিতে লাল রং না থাকায় সরগরম হয়ে ওঠে সোশ্যাল মিডিয়া। বিতর্কের নিষ্পত্তি ঘটাতে আসরে নামেন শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিশ্বকাপে পাক দলের জার্সির সঙ্গে বাংলাদেশের জার্সিকে মেলানোর মতো কিছু হয়নি। এভাবে মেলানো ঠিকও হবে না। সবুজ আমাদের জাতীয় পতাকার রং। এই সবুজের মধ্যে লাল রং দিয়ে বাংলাদেশ লেখা হয়েছিল। কিন্তু আইসিসির আপত্তির কারণে তা পরিবর্তন করে সাদায় লেখা হয়।”

সবুজ রঙের জার্সির পিছনের নম্বরগুলি লাল রং দিয়ে লেখার অনুমোদনের জন্য আইসিসির কাছে পাঠিয়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবি। কিন্তু আইসিসি লাল রং উঠিয়ে দিয়ে জার্সি তৈরি করার কথা জানায়। সেই কারণেই জার্সির ডিজাইন এমন। ফলে এ প্রসঙ্গে মেজাজ হারিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন বলেন, “বাংলাদেশ যেখানে লেখা আছে, সেখানে পাকিস্তান মনে করবে কীভাবে। টাইগারের ছবি যেখানে আছে, তারপরেও কেউ যদি বাংলাদেশের বদলে পাকিস্তান মনে করে, তাহলে তার পাকিস্তানেই থাকা উচিত।” এতে সমালোচনা তীব্রতর হয়। তুমুল বিতর্কের কারণে শেষ পর্যন্ত জার্সি পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নেয় বিসিবি। জানা গিয়েছে, সবুজ জার্সিতে একটি লাল প্যাচ থাকবে। আর দেশের নামটা সাদা রঙেই লেখা থাকবে। আইসিসি এ বিষয়ে অনুমতিও দিয়েছে।

Sharing is caring!

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
shares
Close