আন্তর্জাতিকবিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

মানুষের বিকল্প রোবট!

সময়টা পাল্টাচ্ছে। বিজ্ঞানের কল্যানে আধুনিক প্রযুক্তির সঙ্গে আধুনিক হচ্ছে পৃথিবীও। প্রযুক্তি এখন হয়ে উঠেছে আমাদের দৈনন্দিন কাজের জন্য অনিবার্য। আধুনিক প্রযুক্তির যে অংশটি নিয়ে সবচেয়ে বেশি আলোচনা বর্তমান পৃথিবীতে, সেটি হচ্ছে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, সোজা ভাষায় যাকে আমরা বলে থাকি রোবট। এতদিন মানুষ রোবট ব্যবহার করে আসছিল ঝুঁকিপূর্ণ বা কঠিন কাজ করার জন্য। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে পাল্টে যাচ্ছে রোবটের কাজের ধরনও। রোবট এখন শুধু কলকারখানা বা মহাকাশ গবেষণায় নয়, ব্যবহৃত হচ্ছে দৈনন্দিন জীবনের নানা প্রয়োজনে। আর এ ধরনের প্রয়োজন মেটাতে তৈরি করা হয়েছে হোম রোবট বা সোশ্যাল কম্প্যানিয়ন রোবট। এই রোবটগুলো নানা ধরনের গৃহস্থালি কাজ করতে যেমন সক্ষম, তেমনি এরা

মানুষের একাকীত্ব দূর করতেও দারুণ কার্যকর। প্রযুক্তির এই যুগে রোবটগুলো এখন হয়ে উঠছে মানুষের বন্ধু অনেক ক্ষেত্রে আবার মানুষের বিকল্প!

চলুন জেনে নেয়া যাক এমন কিছু রোবটের কথা। লিখেছেনÑ মীম নোশিন নাওয়াল খান

লিংকস

সাদা রঙের সুন্দর এই রোবটটি দেখতে, শুনতে এবং কথা বলতে পারে। সে আপনাকে হাত নেড়ে অভিবাদন জানাতে পারে, এমনকি জড়িয়েও ধরতে পারে। লিংকস আবহাওয়ার পূর্বাভাস দিতে পারে, পছন্দের গান বাজাতে পারে, এমনকি আপনার দৈনন্দিন কাজের একটি তালিকাও তৈরি করে দিতে পারে। আপনি চাইলে সে আপনাকে ইয়োগা শেখাবে, আবার সে নাচের মুদ্রাও দেখাতে পারে। শুধু তাই নয়, লিংকস আপনার বাড়ির নিরাপত্তাও নিশ্চিত করবে। বাড়িতে আপনি না থাকার সময়ে যদি সে কারো চলাফেরা বুঝতে পারে, সঙ্গে সঙ্গে ৩০ সেকেন্ডের একটি ভিডিও করে পাঠিয়ে দেবে আপনার স্মার্টফোনে। এই রোবটটির মূল্য ৮০০ মার্কিন ডলার।

মিপ

আরাম করে শুয়ে একটা বই পড়ছেন ভীষণ মনোযোগ দিয়ে। ক্ষুধা লেগেছে, কিন্তু খাবার আনতে উঠতে ইচ্ছে করছে না। কোন চিন্তা নেই! আপনাকে মুখে কিছু বলতেও হবে না। স্মার্টফোনের অ্যাপ কিংবা হাতের ইশারার মাধ্যমেই আপনি মিপকে জানাতে পারেন যে আপনি কিছু খেতে চান। মিপ ফ্রিজ খুলে খাবার বের করে নিজের গায়ের সঙ্গে সংযুক্ত ট্রে-তে করে আপনাকে পরিবেশন করবে নিখুঁতভাবে। মিপকে কম্যান্ড দিতে আপনাকে ওয়াইফাই-ও ব্যবহার করতে হবে না। ব্লুটুথের মাধ্যমেই রোবটটিকে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। এই রোবটটির মূল্য মাত্র ৫০ মার্কিন ডলার।

কুরি

মেফিল্ড টেকনোলোজিস-এর তৈরি রোবট কুরি। ছোট্ট হাসিখুশি এই রোবট যে কারও মন ভাল করে দেবে। কুরির গায়ে ক্যামেরা লাগানো আছে, যার মাধ্যমে ঘরে না থেকেও আপনি বাড়িতে কোথায় কী হচ্ছে তার খেয়াল রাখতে পারবেন। এছাড়া রোবটটিতে রয়েছে চারটি মাইক্রোফোন এবং ডুয়াল ব্লুটুথ স্পিকার। রোবটটি আপনার পছন্দমতো গান বাজাতে এবং অডিওবুক শোনাতে সক্ষম। বর্তমানে কুরির উৎপাদন বন্ধ রেখেছে মেফিল্ট টেকনোলোজিস।

পিপার

স্কুলপড়ুয়া শিশুর উচ্চতার হিউম্যানয়েড রোবট পিপার। হাসিখুশি এই রোবটটি চোখে চোখ রাখতে পারে, নাচতে পারে, কৌতুক বলতে পারে। এই রোবটটি মানুষের প্রধান আবেগ-অনুভূতিগুলো বুঝতে পারে এবং একজন মানুষের মানসিক অবস্থা বিবেচনা করে প্রতিক্রিয়া দেখাতে পারে। পিপার অনেক প্রশ্নের উত্তর দিতেও সক্ষম। আর এসব কারণেই ইতোমধ্যে বিভিন্ন হাসপাতাল এবং দোকানে পিপারকে দেয়া হয়েছে রিসিপশনিস্টের দায়িত্ব।

বাডি

আপনার পরিবারের নতুন সদস্য হতে প্রস্তুত মিষ্টি রোবট বাডি। বড় বড় চোখ এবং চ্যাপ্টা মুখের এই রোবটটি যে কারও ভাল লাগতে বাধ্য। বাডি আপনার বাড়ির নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে, রান্নাঘরের কাজে সাহায্য করবে, পরিবারের সদস্যদেরকে গুরুত্বপূর্ণ তারিখ এবং কাজের কথা মনে করিয়ে দেবে। এছাড়াও বাডি শিশুদের সঙ্গে খেলাধুলা করে। সারাদিন বিভিন্ন ধরনের আবেগ প্রকাশ করতে সক্ষম এই রোবটটি। যেমন, আপনি অফিস থেকে ফিরলে সে আপনাকে হাসিমুখে স্বাগতম জানাবে, আবার আপনি তাকে বেশি সময় না দিলে সে মন খারাপ করে থাকবে।

প্রফেসর আইনস্টাইন

একবার ভাবুন তো, আপনি বিজ্ঞান বিষয়ে আলোচনা করছেন স্বয়ং আইনস্টাইনের সঙ্গে! কেমন লাগবে ব্যাপারটা? আপনাকে এরকম অনুভূতি দিতে হ্যানসন রোবটিকস তৈরি করেছে ‘প্রফেসর আইনস্টাইন’ নামক ছোট্ট রোবট। এই রোবটটি দেখতে হুবহু বিজ্ঞানী আইনস্টাইনের মতো। সে আধুনিক পদার্থবিজ্ঞানের জনক আইনস্টাইনের মতো হাসে, এমনকি জিহবাও বের করে। ট্যাবলেট বা স্মার্টফোনের সঙ্গে কানেক্ট করলে এই রোবটটি আপনার সঙ্গে মজার মজার ব্রেইন গেইম খেলবে, শেখাবে বিজ্ঞান। সে আপনার সঙ্গে বিখ্যাত ব্যক্তিদেরকে নিয়ে মজাও করবে।

জেনবো

জনপ্রিয় কোম্পানি আসুস-এর রোবট জেনবো। ছোট মিষ্টি দেখতে এই রোবটটি যে কারোরই দারুণ বন্ধু হয়ে উঠবে। শিশুদের জন্য দারুণ শিক্ষণীয় রোবট জেনবো। সে গান শোনাতে পারে, গল্প শোনাতে পারে, নাচতে পারে, গেইম খেলতে পারে। স্ক্রিনে এ্যানিমেটেড চেহারায় বিভিন্ন ধরনের আবেগ প্রকাশ করতেও সক্ষম জেনবো। এছাড়াও সে আপনাকে ইন্টারনেট থেকে রান্নার রেসিপি খুঁজে দিতে পারে, মনে করিয়ে দিতে পারে গুরুত্বপূর্ণ কাজের কথা।

জিবো

এই রোবটটি স্মার্ট হোম তৈরিতে ভূমিকা রাখছে। সে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ঘরের আলো জ্বালাতে বা নেভাতে পারে এবং ঘরের অন্যান্য যন্ত্রও নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। এছাড়া এই রোবটটি মানুষকে চেহারা ও গলার স্বরের মাধ্যমে শনাক্ত করতে পারে। আর হ্যাঁ, মাঝেমধ্যেই সে কৌতুক বলে আপনাকে হাসাবে। এতে রয়েছে সেন্সর প্রযুক্তি।

সূত্র : রোবটিক্স, বিবিসি

Sharing is caring!

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
shares
Close