শরীফুল ইসলাম:
১০ জানুয়ারি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে চাঁদপুর শিল্পকলা একাডেমীতে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন শিক্ষামন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি এমপি।

তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর নেতেৃত্বে এই দেশ স্বাধীন হয়ে ছিল। আমাদের লক্ষ ছিলো ঠিক, দাবি ছিলো ন্যায্য। আমরা স্বাধীনতা যুদ্ধে বিজয়ী হয়েও আনন্দ উপভোগ করতে পারিনি যতক্ষণ না জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পাকিস্তানি কারাগার থেকে মুক্ত হন। বঙ্গবন্ধু যদি ১০ জানুয়ারি আমাদের মাঝে ফিরে না আসতেন, তাহলে আমরা আজ এই অবস্থানে থাকতাম না। আমাদের পরম সৌভাগ্য আমরা জাতির পিতাকে ফিরে পেয়েছি। কিন্তু পাকিস্তানে বঙ্গবন্ধুকে যা করতে পারেনি, তা আমাদের দেশে পাকিস্তানি, দেশ ও বিদেশি ষড়যন্ত্র কারীরা বঙ্গবন্ধুকে স্ব-পরিবারে হত্যা করে। তাদের মধ্যে ভয় ছিলো বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবার বেচে থাকলে বাংলাদেশ ঘুরে দাড়াবে, তাই সকলকে নির্মম ভাবে হত্যা করে। আমাদের পরম সৌভাগ্য ছিলো জননেত্রী শেখ হাসিনা বেঁচে ছিলেন। তিনি আজ আমাদের মাঝে আছেন বলেই বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র নাছির উদ্দিন আহমদের সভাপতিত্বে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ড. মোহাম্মদ শামছুল হক ভূঁইয়া এমপি।

জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তাফাজ্জল হোসেন এসডু পাটওয়ারী, শাহীর হোসেন পাটওয়ারী ও উপ-দপ্তর অ্যাড. রনজিত রায় চৌধুরী যৌথ পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন জলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলাহজ মো. ইউসুফ গাজী, ডা. জেআর ওয়াদুদ টিপু, আব্দুর রশিদ সরদার, সন্তোষ কুমার দাস, সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. মজিবুর রহমান ভূঁইয়া, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক অজয় কুমার ভৌমিক, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপিকা মাসুদা নুর খান, চাঁদপুর পৌর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রাধা গোবিন্দ গোপ, সাধারণ সম্পাদক আমিনুর রহমান বাবুল।