হাজীগঞ্জ প্রতিনিধি :
হাজীগঞ্জ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে গুনগত শিক্ষার মান বৃদ্ধি সহ প্রতিবছরই শিক্ষার্থীদের ভালো ফলাফল অর্জনের কারণে ২০১৮ইং সনের অনুষ্ঠিত পিএসসি পরীক্ষায় উর্ত্তীর্ণ হওয়া ৩১৪ জন শিক্ষার্থী উপজেলা অন্যান্য প্রতিষ্টিানে ভর্তি না হয়ে পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ভর্তি হতে রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছে। অভিভাবকরা তাদের আদরের সন্তানদেন ভালো স্কুলে ভর্তি করাতে আগে তাদের মনের মতো ভালো প্রতিষ্ঠান বেছে নিয়েছে। চলতি বছরে এই প্রতিষ্ঠানে ৩১৪ জন শিক্ষার্থী তাদের মেধা মূল্যায়নের মাধ্যমে সিরিয়াল ঠিক করতে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেয়। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এবার তিনটি নতুন শাখায় পাঠদান করাবেন। শাখাগুলো জেনিয়া, জেসমিন, নিউলিপ। তবে সকল শাখাতেই মানসম্মত শিক্ষাদানে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ পরিচালনা পর্ষদের। বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী ও সমাজ সেবক আলহাজ্ব সৈয়দ আহমেদ খসরু বলেন, আমরা মডেলে বিশ্বাসী না গুনমত শিক্ষা ও আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে ভালো ফলাফল অর্জনে বিশ্বাসী। এ বিদ্যালয়ে ফলাফলের ধারা অব্যাহত রাখতে শিক্ষকদের পাশা পাশি পরিচালনা পর্ষদের সকল নেতৃবৃন্দ নিরলস পরিশ্রম করে থাকে। এ প্রতিষ্ঠানে ধনী গরিবের বাচাই হয় না। যারা মেধাবী তাদের মেধা মূল্যায়ন করতে এবং যারা প্রতিযোগী তাদেররকে মেধাবী করে গড়ে তুলতে সর্বাত্মক চেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। এই সময়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. দেলোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে সকল সহকারি শিক্ষক বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Share Button