অনলাইন ডেস্ক:

আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও চাঁদপুর-৩ আসনে তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত সংসদ সদস্য ডা. দীপু মনিকে আবারও মন্ত্রী দেখতে চান চাঁদপুরবাসী।

চাঁদপুরবাসীর একান্ত প্রত্যাশা, আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী এবারও ডা. দীপু মনিকে মন্ত্রিসভায় স্থান দিয়ে নারী ক্ষমতায়ে আবারও উদাহরণ সৃষ্টি করবেন।
এ দাবির ব্যাপারে চাঁদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল বলেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি ডা. দীপু মনিকে যে মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দিবেন তিনি সেখানেই সফলতার স্বাক্ষর রাখবেন। ডা. দীপু মনিকে আবারও মন্ত্রিত্ব দিলে আমরা সাধুবাদ জানাবো।

চাঁদপুরের কৃতিসন্তান গীতিকবি মিলন খান বলেন, ডা. দীপু মনিতো আমাদের চাঁদপুরের নয়ন মনি, সুশিক্ষিতা, আধুনিকা, মেধাবী, এক কথায় অনন্যা…। যোগ্যতম এই মানবীকে আমরা আবারও দেখতে চাই জনবান্ধব সরকারের একজন মন্ত্রী হিসেবে।

চাঁদপুর সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এবিএম রেজওয়ান বলেন, ডা. দীপু মনি আপার মতো একজন যোগ্য মানুষ আবারও মন্ত্রিসভায় থাকবেন এটা আমাদের চাঁদপুরবাসীর প্রত্যাশা।

চাঁদপুরবাসীর এই দাবিকে সাধুবাদ জানিয়ে প্রভাষক (বাংলা) জসিম উদ্দিন বলেন, আমাদের প্রত্যাশা ডা. দীপু মনি এবারও মন্ত্রিত্ব পাবেন। উনি আগেও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন। চাঁদপুরবাসীর উন্নয়নে উনি মেডিকেল কলেজ করেছেন। আমরা এখন চাঁদপুরে একটা সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় চাই।

২নং আশিকাটি ইউনিয়নের দক্ষিণ পাইকাস্তা (৮নং ওয়ার্ড) আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম হাওলাদার  বলেন, আমি ডা. দীপু মনিকে মন্ত্রিত্ব দেওয়ার দাবি জানাই। আমি মনে করি- যেহেতু উনি ডাক্তার, তাই উনাকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী দিলে বেশি খুশি হব।

সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় চাঁদপুরবাসীর প্রত্যাশা এই এলাকার অসমাপ্ত কাজগুলো সম্পন্ন করার পাশাপাশি চাঁদপুর পৌর সভাকে সিটি কর্পোরেশনে রূপান্তর এবং একটি সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হোক।

উল্লেখ্য, ২০০৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের জয়লাভের পর ডা. দীপু মনি ২০০৯ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশের প্রথম নারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

Share Button