অনলাইন ডেস্ক:

রোগী থেকে ৩২ কিলোমিটার দূরে রয়েছেন ডাক্তার। কিন্তু রোগীর হৃদযন্ত্রে অপারেশন করা জরুরি। তাই সেখানেই বসে টেলিরোবটিক সার্জারি করলেন ডাক্তার তেজস পাটেল। ভারতের গুজরাটে বুধবার এ অপারেশন হয়েছে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

গুজরাটের গান্ধীনগরের অক্ষরধাম মন্দিরে ছিলেন ডাক্তার তেজস পাটেল। রোগী ছিলেন আজমদাবাদের অ্যাপেক্স হার্ট ইন্সটিটিউটের অপারেশন টেবিলে। কয়েক দিন আগে ওই নারী অসুস্থ হওয়ায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। তিনি নিজেরই রোবটিক সার্জারি করাতে রাজি হয়েছিলেন।

তেজস পাটেল যখন সার্জারি শুরু করেন তখন তার পাশে গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানি, উপমুখ্যমন্ত্রী নীতি পাটেল ও ওই মন্দিরের পুরোহিতরা উস্থিত ছিলেন বলে খবরে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে তেজস পাটেল বলেন, ‘ইন্টারভেনশনাল মেডিসিনের ক্ষেত্রে একটি মাইলস্টোন হয়ে থাকবে এই অপারেশন। পৃথিবীতে হৃদরোগ-সংক্রান্ত কারণেই সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা যান। এই পদ্ধতি দূরবর্তী এলাকার রোগীদের বাঁচানোর ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা নিতে পারে।’

এই পদ্ধতিতে অপারেশন করার জন্য প্রায় দেড় ১৩ কোটি টাকার যন্ত্রপাতির প্রয়োজন হয়েছে। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার প্রযুক্তি ব্যবহার করে এই অপারেশন করা হয়েছে।

তবে এখন থেকে শুধু ৩২ কিলোমিটার নয়, পৃথিবীর যে কোনো জায়গায় বসে ইন্টার কানেকশনের মাধ্যমে এ প্রযুক্তি ব্যবহার করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন তেজস পাটেল।

Share Button