নতুনেরডাক অনলাইন :

বিশ্বের ক্ষমতাধর শীর্ষ ১০০ নারীর তালিকায় ২৬তম অবস্থানে আছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এবার শেখ হাসিনার অবস্থান ৪ ধাপ এগিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ-বাণিজ্যবিষয়ক সাময়িকী ফোর্বস ২০১৮ সালের ক্ষমতাধর নারীদের তালিকায় এ অবস্থান উঠে এসেছে। গত মঙ্গলবার এ তালিকা প্রকাশ করা হয়। গত বছরের তালিকায় শেখ হাসিনার অবস্থান ছিল ৩০তম স্থানে। এর আগের বছর তিনি ছিলেন ৩৬ নম্বরে, ২০১৫ সালের তালিকায় তার অবস্থান ছিল ৫৯তম।

 এ তালিকায় ধারাবাহিকভাবে উন্নতি ঘটেছে বাংলাদেশে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা শেখ হাসিনার।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের সাময়িকী ফরচুনের করা বিশ্বের প্রভাবশালী শীর্ষনেতাদের তালিকায় স্থান পেয়েছিলেন শেখ হাসিনা। প্রভাবশালীদের তালিকায় তাকে রেখেছিল টাইম ম্যাগাজিনও।

তালিকায় থাকা প্রত্যেকের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি দিয়েছে ফোর্বস। শেখ হাসিনা সম্পর্কে সাময়িকীটি লিখেছে, ২০১৭ সালে তিনি মিয়ানমার থেকে প্রাণ বাঁচাতে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা মুসলমানদের আশ্রয় এবং তাদের জন্য ২ হাজার একর জমি বরাদ্দ দেন। তিনি বর্তমানে রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসন নিশ্চিত করতে কাজ করছেন।

মঙ্গলবার প্রকাশিত ২০১৮ সালের তালিকায় শীর্ষস্থানটি ধরে রেখেছেন জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল। তার পরের অবস্থানে রয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছেন আইএমএফ ব্যবস্থাপনা পরিচালক ক্রিস্টিন লগার্ড, চতুর্থ স্থানে রয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের জেনারেল মটরসের চেয়ারপারসন ও সিইও মেরি বারা, পঞ্চম স্থানে রয়েছেন ফিডেলিটি ইনভেস্টমেন্টসের সিইও আবিগেইল জনসন। মেলিন্ডা গেটস রয়েছেন ষষ্ঠ স্থানে।

ক্ষমতাধরদের এ তালিকায় হলিউডের এই সময়ের সবচেয়ে দামি অভিনেত্রী টেইলর সুইফট রয়েছেন ৬৮তম স্থানে, বলিউড তারকা প্রিয়াঙ্কা চোপড়া আছেন ৯৪তম স্থানে। খেলোয়াড়দের মধ্যে টেনিস তারকা সেরেনা উইলিয়াম রয়েছেন ৭৯তম স্থানে।

তালিকায় যুক্তরাজ্যের রানী এলিজাবেথ ২৩ নম্বরে, যুক্তরাষ্ট্রের টেলিভিশন ব্যক্তিত্ব অপরাহ উইনফ্রে আছেন ২০ নম্বরে। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মেয়ে ব্যবসায়ী ইভাঙ্কা ট্রাম্পের অবস্থান ২৪ নম্বরে।

Share Button