ক্রীড়া ডেস্ক:

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ঢাকায় সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে বিরল দুটি রেকর্ড করেছে বাংলাদেশ দল। আসুন জেনে নেই সেই রেকর্ডগুলো সম্পর্কে-

* প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বাংলাদেশ ৫০৮ রান করে। টেস্টে এটা বাংলাদেশের সপ্তম সর্বোচ্চ রান। আর এই রান করতে বাংলাদেশের ১১ ব্যাটসম্যানই দুই অঙ্ক ছোঁয়া রান করেন। বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ ১৩৬ রান করেন মাহমুদুল্লাহ। আর সেই ইনিংসেই সর্বনিন্ম নাঈম হাসানের অপরাজিত ১২ রান। টেস্টে এমন ঘটনা ঘটেছে এ নিয়ে মাত্র ১৪ বার।
সেই সঙ্গে টেস্ট খেলুড়ে ১২ দলের মধ্যে ষষ্ঠ দল হিসেবে এটা করতে পেরেছে বাংলাদেশ দল।

* বাংলাদেশের করা ৫০৮ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমেই হিমসিম খেতে হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব্যাটসম্যানদের। বাংলাদেশী বলারদের তান্ডবে ধস নামে ইন্ডিজ শিবিরে। মাত্র ২৯ রানে তুলে নেয় প্রতিপক্ষের ৫ উইকেট। আগের টেস্টে ৪৪ রানে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৫ উইকেট তুলে নেয় বাংলাদেশ। সেটাই ছিল কমরানে ৫ উইকেট নেওয়ার রেকর্ড।

* এদিকে ওয়েস্ট ইন্ডিজ টপ অর্ডারের পাঁচ ব্যাটসম্যানকেই বোল্ড করে দিয়েছে সাকিব-মিরাজরা। টেস্টে এমন ঘটনা ঘটল মাত্র তিনবার। সর্বশেষ ১২৮ বছর আগে কোন দলের প্রথম পাঁচ ব্যাটসম্যানই বোল্ড হওয়ার ঘটনা ঘটে। ১৮৯০ সালে সর্বশেষ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ইংল্যান্ডের প্রথম পাঁচ ব্যাটসম্যানই বোল্ড হয়। তার আগে অস্ট্রেলিয়ার টপ অর্ডারের পাঁচ ব্যাটসম্যানকে বোল্ড করে ইংল্যান্ড। সেটা ১৮৭৯ সালের ঘটনা।

* তবে যে রেকর্ডটি শুধুই বাংলাদেশের হয়েছে সেই বিশেষ রেকর্ডটির কথা আলাদা ভাবে না বললেই নয়। টপ অর্ডার পাঁচ ব্যাটসম্যানকেই বোল্ড করার রেকর্ডতো হয়েছেই। তবে রেকর্ডটি আলাদা করেছে বাংলাদেশের স্পিনাররা। কারণ এই প্রথম কোন দলের প্রথম পাঁচ ব্যাটসম্যানকে বোল্ড করলেন স্পিনাররা। এর আগে শুধু স্পিন ঘূর্ণিতে কোন দলের শুরুর পাঁচ ব্যাটসম্যান বোল্ড হননি।

* আর এই প্রথম বাংলাদেশ দল কোনো প্রতিপক্ষকে ফলোঅন করাতে পেরেছে।

* প্রথমবারের মতো টেস্টে ইনিংস ব্যবধানে জয় তুলে নিয়েছে টাইগাররা।

Share Button