নিজস্ব প্রতিনিধি॥
চাঁদপুরের ২টি আসন ঐক্য ফ্রন্ট নেতৃত্বাধীন নাগরিক ঐক্য ও এলডিপিকে ছাড় দিচ্ছে বিএনপি। এমন গুঞ্জন উঠছে। তবে বিষয়টি গুঞ্জন নয়, সত্যই বলছে এ দু’আসনের প্রার্থীরা। আসন ২টি হলো চাঁদপুর-৩ (সদর-হাইমচর) ও চাঁদপুর-৫ (হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি)।

নাগরিক ঐক্যের প্রধান সমন্বয়ক সুব্রত জানান, চাঁদপুর-৩ আসনটি আমাদেরকে ছাড় দেয়া হয়েছে সেখানে নাগরিক ঐক্যের কেন্দ্রীয় নেতা অ্যাড. ফজলুল হককে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে প্রবীণ রাজনীতিবিদ, প্রবীণ আইনজীবি, চাঁদপুর আইনজীবি সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাড. ফজলুল হক সরকারের সাথে মুঠোফোনে যোগা-যোগ করা হলে তিনি এর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বিএনপি মহা-সচিব কর্তৃক স্বাক্ষরিত মনোনয়নপত্র আমার হাতে রয়েছে। এ আসনটি জাতীয় ঐক্য ফ্রন্টের নাগিরক ঐক্যকে ছাড় দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক সলিম উল্যাহ সেলিম বলেন, আমি বিএনপি বুঝিনা ঐক্য ফ্রন্টও বুঝিনা। যাকে দল মনোনয়ন দেয় আমরা তার পক্ষেই কাজ করবো।

অপর দিকে চাঁদপুর-৫ (হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি) আসনটি ২০ দলীয় জোট নেতৃত্বাধীন এলডিপিকে ছাড় দেয়া হয়েছে বলে বিভিন্ন সূত্র থেকে জানাগেছে। এ ব্যাপারে ২০ দলীয় জোট নেতৃত্বাধীন এলডিপি’র চাঁদপুর-৫ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী ড. নেয়ামুল বশির বলেন, আমরা ১২টি আসন চেয়েছি। বিএনপি আমাদের ১০টি আসন দিয়েছে আরো ২টির জন্য দরকষাকষি চলছে। ১০টি আসনের মধ্যে চাঁদপুর-৫ (হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি) আসনটিও রয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক ও হাজীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক আলহাজ¦ ইমাম হোসেন বলেন, কোন অবস্থাতেই চাঁদপুর-৫ (হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি) আসনটি এলডিপিকে দেয়া হবেনা। তিনি আরো বলেন, যে লোকটিকে এখানে এলডিপির প্রার্থী করা হচ্ছে শুনতেছি, সে একজন আননোন ব্যক্তি। তাকে কেউ চিনেনা। এমন লোককে কেউ মেনে নেবেনা। তিনি বলেন, এটি বিভ্রান্তিমূলক কথা। এ সব কথা বলে মানুষকে বিভ্রান্তি করা হচ্ছে।

Share Button