আন্তর্জাতিক

ইসরাইলের সাথে সৌদির গোপন বাণিজ্য সম্পর্ক!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ইসরাইলি বারকান বসতিতে একটি কারখানায় সৌদি আরবের একটি ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানির পণ্য দেখতে পেয়েছেন এক ফিলিস্তিনি মানবাধিকারকর্মী। পরবর্তী সময় তিনি তা ভিডিও করে সামাজিকমাধ্যমে ছড়িয়ে দেন।

এ নিয়ে সৌদি আরবের সঙ্গে অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলের গোপন বাণিজ্য নিয়েও সন্দেহ পোষণ করছেন অনেকে।

বৃহস্পতিবার ভিডিওটি ভাইরাল হলে ফিলিস্তিনিদের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভ দেখা গেছে। মিডল ইস্ট মনিটর ও আরব নিউজের খবরে এমন তথ্য জানা গেছে।

অধিকৃত পশ্চিমতীরের কেন্দ্রে দ্য সালফিট গভরনোরেটে আল বারকান অবৈধ বসতি অবস্থিত।

ভিডিওতে দেখা যায়, ভবন নির্মাণসামগ্রী ভরা কয়েক ডজন ব্যাগ একটি কারখানার গাড়ি পার্ক করার জায়গায় স্তূপ করে রাখা হয়েছে।

ব্যাগের গায়ে বিশ্বে সৌদি আরবের অন্যতম প্রধান রাসায়নিক কোম্পানি এসএবিআইসির লোগো লাগানো। অর্থাৎ বিখ্যাত ওই কোম্পানির উৎপাদিত পণ্য ইসরাইলি বসতির ভেতর দেখা গেছে।

এতে অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলের সঙ্গে সৌদি আরবের অনানুষ্ঠানিক বাণিজ্য সম্পর্ক নিয়ে মানুষের মনে সন্দেহ বাড়ছে।

এসবিআইসি সাধারণ রাসায়নিক পণ্য উৎপাদন করে। যেমন বিভিন্ন প্লাস্টিক দ্রব্য, সার, পলিমার, ধাতু ছাড়াও বিভিন্ন রফতানি পণ্য।

সম্প্রতি ইসরাইলের নিরাপত্তার ক্ষেত্রে সৌদি আরবের গুরুত্ব নিয়ে কথা বলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর পরই সৌদি-ইসরাইল কূটনৈতিক সম্পর্ক নিয়ে আলোচনা চলছে।

ইসরাইলি দৈনিক পত্রিকা হারিটজ জানিয়েছে, ২০১৫ সালে ইসরাইলের কাছ থেকে সৌদি আরব আড়িপাতার যন্ত্র কেনার চেষ্টা করেছিল। কিন্তু ইসরাইল সেই সহযোগিতা অস্বীকার করে।

টুইটারে ক্ষোভ প্রকাশ করে এক ব্যক্তি বলেন, ইসরাইলি অবৈধ বসতিতে এসব সৌদি পণ্য এলো কীভাবে? আরেকজন প্রশ্ন রাখেন-সৌদি যুবরাজ ও তার সন্ত্রাসবাদের পক্ষে কীভাবে একজন মানুষ সাফাই গাইতে পারেন।

টুইটারে আরেক ব্যক্তি বলেন, এটি কি ইসরাইলি দখলদারদের সৌদি সহায়তা?

ইসরাইলের সঙ্গে সৌদি আরবের আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো সম্পর্ক নেই। তবে সম্প্রতি দুই দেশের মধ্যে গোপন কূটনৈতিক ও গোয়েন্দা সহযোগিতার কথা গণমাধ্যমের খবরে প্রকাশ পেয়েছে।

Sharing is caring!

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares