অনলাইন ডেস্ক:

বাংলাদেশের প্রথম যোগাযোগবিষয়ক স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-১ পুরোপুরি কার্যকর হতে তিন মাস সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। মহাকাশে স্যাটেলাইটের সফল উৎক্ষেপণ উপলক্ষে সোমবার বিকেলে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে মন্ত্রী সাংবাদিকদের প্রশ্নে এ কথা বলেন।

মঙ্গলবার সারা দেশে আতশবাজি উৎসবের আয়োজন করেছে সরকার।

এ সময় তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়-সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ইমরান আহমেদ, বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) বিদায়ী চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদসহ স্যাটেলাইট প্রকল্পসংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

গত শুক্রবার দিবাগত রাত ২টা ১৪ মিনিটে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে সফলভাবে মহাকাশে পাঠানো হয় বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, নির্ধারিত কক্ষপথে সঠিকভাবে স্থাপিত হতে বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের প্রায় এক মাস সময় লাগবে। এরপর সেটি সঠিকভাবে কাজ করছে কি না, তা জানতে সব মিলিয়ে তিন মাস সময় লাগবে।

স্যাটেলাইটটির মালিকানার সঙ্গে কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সম্পর্ক নেই বলে জানিয়েছেন মোস্তাফা জব্বার। তিনি বলেন, ‘এই স্যাটেলাইটের মালিক বাংলাদেশের জনগণ। কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের এ স্যাটেলাইটের মালিকানা থাকার কারণ নেই। আমাদের কিছু কিছু রাজনৈতিক দলের বড় বড় নেতা এ বিষয়ে মূর্খের মতো কথা বলেছেন।’

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গত শনিবার দাবি করেন, বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের মালিকানা দুই ব্যক্তির কাছে চলে গেছে। তবে তাঁদের পরিচয় তিনি প্রকাশ করেননি।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত বিটিআরসির কর্মকর্তারা জানান, বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের সফল উৎক্ষেপণ উদ্যাপন করতে মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাতটা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত সারা দেশে আতশবাজি উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ থেকে এ বিষয়ে আসা নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, হাতিরঝিল ও দেশের প্রতিটি জেলা শহরের নির্ধারিত স্থানে এই আয়োজন করা হবে।

Share Button