মোহাম্মদ হাবীব উল্যাহ্:
বিচ্ছিন্ন ঘটনা ও কেন্দ্র দখলের অভিযোগের মধ্য দিয়ে হাজীগঞ্জ উপজেলার নবগঠিত দ্বাদশগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের সাধারণ নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। নির্বাচনে ৩৮৩০ ভোট পেয়ে ইউনিয়নের প্রথম চেয়ারম্যান হিসেবে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী মো. খোরশেদ আলম বকাউল নির্বাচিত হয়েছেন।
মো. খোরশেদ আলম বকাউল তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্ধী প্রার্থীর চেয়ে ২০৯৪ ভোট বেশী পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্ধী বিএনপি মনোনিত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী আনোয়ারুল ইসলাম বাবুল ১৭৩৬, স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আব্দুর রব মিয়া আনারস প্রতীকে ১৫৫৫ ও ওমর ফারুক ঘোড়া প্রতীকে ৩৮১ ভোট পেয়েছেন।
মঙ্গলবার (১৫ মে) অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ৯৯১৬ ভোটের মধ্যে ৭৬২৭ ভোট কাস্ট হয়। ভোট প্রদানের হার শতকরা ৭৫.৬১ ভাগ। এর মধ্যে ১৩০ ভোট বাতিল হয়েছে। এ দিন সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোট গ্রহণ করা হয়। ভোট গননা শেষে ফলাফল ঘোষণা করেন রির্টানিং অফিসার ও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা নয়নমনি সূত্রধর।
এর পূর্বে দুপুর ১২টায় নির্বাচন বর্জন করে বিকাল ৩টায় সংবাদ সম্মেলন করেছেন বিএনপি মনোনিত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী আনোয়ারুল ইসলাম বাবুল। আওয়ামী লীগ প্রার্থীর বিরুদ্ধে বহিরাগতদের দিয়ে কেন্দ্র দখলের অভিযোগে তিনি নির্বাচন বর্জন করেন।


এদিন সকাল ৮টায় নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। সকাল ১০ টায় ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড মালাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কেন্দ্রটি আওয়ামী লীগ সমর্থকরা দখল করে ব্যালট পেপার ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠে। তবে রির্টানিং অফিসার পেপার ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, সিলটি নিয়ে গেছে।
সকাল ১১টায় ৫নং ওয়ার্ড সাতবাড়ি ভাঙ্গা টিনশেড মক্তব ঘর, দুপুর ১টায় ৭নং ওয়ার্ড দেওদ্রোন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দুপুর ২টায় ৬নং ওয়ার্ড কাপাইকাপ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দুপুর ২টা ৩০ মিনিটে ৩নং ওয়ার্ড নাসিরকোট উচ্চ বিদ্যালয় ও একই সময়ে ৬নং ওয়ার্ড কাপাইকাপ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভোট কেন্দ্রটি বহিরাগতদের দিয়ে দখলের অভিযোগ উঠে আওয়ামী লীগ কর্মী-সমর্থকদের বিরুদ্ধে। তবে এসব অভিযোগ আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনাকারীরা অস্বীকার করেন।
এ দিকে ভোট গ্রহণ শুরু থেকেই শেষ পর্যন্ত ৪নং ওয়ার্ড ইছাপুরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভোট কেন্দ্রের পাশের মাঠে রাজারগাঁও ইউনিয়ন ও দ্বাদশগ্রাম ইউনিয়নের সীমান্ত এলাকায় রাজারগাঁও গ্রামে একদল যুবক দফায় দফায় বেশ কয়েকটি ককটেলের বিস্ফোরন ঘটায় এবং মাঠে থাকা কিছু খড়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। তবে ভোট কেন্দ্রে এর প্রভাব পড়েনি।

সকাল থেকে দুপুর বারটা পর্যন্ত কয়েকটি কেন্দ্র ঘুরে সুষ্ঠ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন হতে দেখা যায়। এরপর থেকে বিএনপির প্রার্থী আনোয়ারুল ইসলাম বাবুল ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আ. রব মিয়া আওয়ামী লীগ প্রার্থীর বিরুদ্ধে এক এক করে বিভিন্ন কেন্দ্র দখলের অভিযোগ আনেন। নির্বাচনে পুরুষের চেয়ে নারী ভোটারের উপস্থিতি ছিলো লক্ষ্যনীয়। নির্বাচন পরিদর্শন করেছেন জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুল ইসলাম, পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বৈশাখী বড়–য়া।
নির্বাচনে ১নং ওয়ার্ডে ইউপি সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন ইউছুফ পাটোয়ারী, ২নং ওয়ার্ডে মো. মুকছুদ আলী, ৩নং ওয়ার্ডে মো. সেলিম বেপারী, ৪নং ওয়ার্ডে মোহাম্মদ আব্দুল মালেক, ৫নং ওয়ার্ডে হেলাল, ৬নং ওয়ার্ডে মো. একরামুল হক, ৭নং ওয়ার্ডে মো. জাকির হোসেন, ৮নং ওয়ার্ডে মো. সিরাজুল ইসলাম ও ৯নং ওয়ার্ডে ইউপি সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন মো. জহির কাজী।
সংরক্ষিত- ১ (ওয়ার্ড নং- ১, ২ ও ৩) নারী সদস্য পদে জোৎ¯œা বেগম, সংরক্ষিত-২ (ওয়ার্ড নং- ২, ৩ ও ৪) সালমা আক্তার ও সংরক্ষিত- ৩ (ওয়ার্ড নং- ৭, ৮ ও ৯) মরিয়ম বেগম ও ছালাম বেগম উভয় ৬০২ ভোট করে পেয়েছেন। যার ফলে তাৎখনিক ফলাফল ঘোষণা করা হয়নি। পরবর্তীতে বিধি অনুযায়ী ফলাফল (সংবাদ লেখা পর্যন্ত) ঘোষণা করা হবে বলে জানান রির্টানিং কর্মকর্তা নয়নমনি সূত্রধর।

Share Button