হাজীগঞ্জ

উন্নত প্রগতিশীল মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়ে তুলতে হবে : মেজর অব. রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম এমপি

আরমান কাউসার/মোহাম্ম হাবীব উল্যাহঃ
চাঁদপুর-৫ (হাজীগঞ্জ শাহরাস্তি) নির্বাচনি এলাকার সংসদ সদস্য নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয় সম্পকির্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান মেজর অব. রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম এমপি বলেছেন, আমাদের সমাজে সাম্প্রদায়িকতা ডুকে পড়ছে। আমাদেরকে উন্নত প্রগতিশীল মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ^াসী অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়ে তুলতে হবে।  তাহলেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নবাস্তবায়িত হবে।
তিনি বলেন, সাম্প্রদিয়কতার বিষবাস্প সাংবাদিকগন তুলে ধরে তা সমাজ থেকে উপড়ে ফেলতে হবে। বিভ্রান্তিতে কান না দিয়ে দেশের উন্নয়নে কাজ করতে হবে। মানুষ ভিন্ন মতের হতে পারে দেশতো একটা। সম্মিলিতভাবে কাজ করে দেশকে সামনের দিকে নিয়ে যেতে হবে।

তিনি আজ শুক্রবার ১৯ মে হাজীগঞ্জ প্রেসক্লাবের ২১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত ৬ দিন ব্যাপি অনুষ্ঠানমালার পঞ্চম দিনে আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
হাজীগঞ্জ বাজারস্থ পুরাতন পৌর ভবনের ৩য় তলায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি মেজর অব. রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম এমপি আরো বলেন, সবার আগে দেশপ্রেম থাকতে হবে। সঠিক সংবাদ পরিবেশন করতে হবে। সংবাদের পিছনের খবর বের করে আনতে হবে। যদি আপনারা তা করতে পারেন। তাহলে সংবাদপত্র বেঁচে থাকবে। এ ক্ষেত্রে অনালাইন ও টেলিভিশন সংবাদ কোন বাধা হবে বলে আমি মনে করিনা।
নিজের এলাকা হাজীগঞ্জ শাহরাস্তি‘র উন্নয়নের বিষয়ে প্রধান অতিথি মেজর অব. রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম এমপি বলেন, ১৯৯৬ সালে আমি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর এই দুই উপজেলায় মাত্র ১০ কিলোমিটার পাকা সড়ক ছিলো আর এখন ২শ ৫৬ কিলোমিটার পাকা সড়ক রয়েছে, তখন ডাকাতিয়ার উপর মাত্র ১টি সেতু ছিলো আর এখন নির্মানাধীনটা সহ ৮টি সেতু রয়েছে, ডাকাতিয়ার উপর নির্মিত সেতুর টোল প্রত্যাহার করা হয়েছে, ব্রীজ করা হয়েছে প্রায় সাড়ে ৫শ, একেবারে নতুন শিক্ষা ভবন করা হয়েছে ৩শ ৬০টি, শাহরাস্তিতে ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশান করা হয়েছে একই পৌরসভাকে প্রথম শ্রেনীর পৌরসভায় উন্নীত করা হয়েছে আর এরকম উন্নয়ন আমরা করেছি।
তিনি বলেন, হাজীগঞ্জ প্রেসক্লাব একটাই এবং এটি একটি শক্তিশালি সংগঠন। হাজীগঞ্জে সাংবাদিকদের মাঝে ঐক্য রয়েছে। এ ঐক্য ধরে রেখে দেশের উন্নয়ণে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। তিনি বলেন, আমি যখন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলাম, তখনকার সময়ে আমাকে অনেক সাংবাদিকরা সহযোগিতা করেছে। আপনারা মফস্বলের সাংবাদিক হলেও জাতীয়ভাবে আপনাদের অবদান ছোট করে দেখার সুযোগ নেই।
হাজীগঞ্জ প্রেসক্লাবের নিজস্ব ভবনের বিষয়ে মেজর অব. রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম বলেন, আপনারা জমি খুঁজে বের করুন আমি বন্দোবস্তের জন্য যেখানে যেখানে দরকার কথা বলবো। প্রয়োজন হলে আমি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের সাথে এ বিষয়ে আমি কথা বলবো।

সাংবাদিক হতে হলে পড়ালেখা জানার বিকল্প নেই : মুহম্মদ সফিকুর রহমান

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় সংবর্ধিত অতিথি জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি মুহাম্মদ সফিকুর রহমান বলেন, পড়ালেখা না জানলে এই পেশায় কেউ বেশী দিন টিকে থাকতে পারবে না। সাংবাদিকতা লেখাপড়া জানা লোকদের পেশা, উন্নত রাষ্ট্রগুলোতে সংবাদপত্র কমে গিয়ে অনলাইন সার্কলেশনের দিকে ঝঁকুতে দেখা যাচ্ছে কিন্তু আমার ধারনা প্রিন্ট সংস্করন  কখনো মরে যাবে না। সাংবাদিক হতে হলে পড়ালেখা জানার বিকল্প নেই। আামি জানি হাজীগঞ্জ সাংবাদিকরা অনেক ভালো লিখতে পারে। সাংবাদিকগন এই মাটির সন্তান, তাদেরকে এই মাটির কথা লিখতে হবে।
জাতীয় ইস্যু নিয়ে সংবর্ধিত বিশেষ অতিথি মুহাম্মদ সফিকুর রহমান বলেন, সম্প্রতি সময়ে আমি কলকাতা প্রেসক্লাবে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশ নেই। সেই অনুষ্ঠানে বলেছি বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন আমাদেরকে দাবায়ে রাখতে পারবা না ঠিক সেইভাবে তিস্তা সমস্যা নিয়ে বললাম তিস্তার পানি আমাদেরকে দিতে হবে।
অনুষ্ঠানের এই পর্বে সংবর্ধিত অতিথিদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নারী মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ সৈয়দা বদরুন নাহার চৌধুরী, শিল্পপতি (সিআইপি) জয়নাল আবেদীন, হাজীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহবুবুল আলম মজুমদার, হাজীগঞ্জ কমার্স কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ সালাউদ্দিন ভূইয়া। এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন, শাহরাস্তি পৌর মেয়র আলহাজ¦ আব্দুল লতিফ, আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক গাজী মোঃ মাইনুদ্দিন, শহর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আহম্মদ খসরু, হাজীগঞ্জ প্রেসক্লাব প্রতিষ্ঠাতা সদস্য নুরুল ইসলাম বিএসসি, মাহবুবুল আলম চুন্নু, আলী আশরাফ দুলাল, ইকবালুজ্জামান ফারুক প্রমূখ।
এর আগে দিনের শুরুতে আয়োজিত সংবর্ধিত অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ¦ অধ্যাপক আবদুর রশিদ মজুমদার, অনুষ্ঠানের উদ্বোধক হিসেবে বক্তব্য রাখেন হাজীগঞ্জ পৌর মেয়র আসম মাহবুব উল আলম লিপন। এ পর্বে সংবর্ধিত অতিথিদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন হাজীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি রোটা. আহসান হাবিব অরুন, সাবেক সভাপতি আশফাকুল আলম চৌধুরী, হাজীগঞ্জ ডিগ্রী কলেজে অধ্যক্ষ মাসুদ আহম্মেদ, শ্রেষ্ঠ করদাতা রুহিদাস বনিক, হাজীগঞ্জ ভিআইপি হাসপাতালের চেয়ারম্যান ডা.এমএইচ সুমন। রামপুর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারন সম্পাদক এস এম মানিক।
দিনের মধ্যবর্তী সেশনে স্থানীয় সংবাদকর্মীদের কর্মশালায় প্রশিক্ষক হিসেবে অংশ নেন, চাঁদপুর কন্ঠের প্রধান সম্পাদক কাজী শাহাদাত, দৈনিক চাঁদপুর দর্পনের সম্পাদক ও প্রকাশক ইকরাম চৌধুরী, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শাহ মোহাম্মদ মাকুসুদুল আলম, দৈনিক চাঁদপুর জমিনের সম্পাদক ও প্রকাশক রোকনুজ্জামান রোকন, দৈনিক যুগান্তরের সহ-সম্পাদক জাকির মজুমদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হাজীগঞ্জ সার্কেল) আফজাল হোসেন।
দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন হাজীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মুন্সী মোহাম্মদ মনির ,সঞ্চলনে ছিলেন সাধারন সম্পাদক সফিউল বাসার রুজমন। এ সময় প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ ও সদস্য , বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, এলাকার গন্যামান্য ও ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

Sharing is caring!

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares