হাজীগঞ্জ

শিক্ষার্থীদের কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন প্রিয় শিক্ষক
হাজীগঞ্জ জগন্নাথপুর হাজী এরশাদ মিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আরো নেই

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ
শিক্ষার্থীদের কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন প্রিয় শিক্ষক আনোয়ার হোসেন। এ ভাবে তাঁর চলে যাওয়া অনেক শিক্ষার্থীই কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে। একজন শিক্ষার্থী আরেকজনের গলা ধরে কাঁদতে দেখা যায়। এ কান্না চির বিদায়ের, এ কান্নান জগন্নাথপুর হাজী এরশাদ মিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আনোয়ার হোসেনের চির প্রয়াতের কান্নান। সবাইকে কাঁদিয়ে শুক্রবার দুপুর ৪টায় হৃদ রোগে আক্রান্ত হয়ে হাজীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন) মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল বছর ৫৫ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও ২ ছেলেসহ অসংখ্যগুণগ্রাহী রেখেযান।
তাঁর মৃত্যুর খবর বিদ্যালয়ে পৌঁছলে সেখানে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা ঘটে।  বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, শিক্ষকবৃন্দ,অভিবাবক ও এলাকাবাসীর মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে।
মো. আনোয়ার হোসেন ২০০৩ সালে ১৬ সেপ্টেম্বর জগন্নাথপুর হাজী এরশাদ মিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন।
আনোয়ার হোসেনের জানাযার নামাজ শুক্রবার বাদ মাগরিব বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। শনিবার দ্বিতীয় জানাযার নামাজ শেষে মরহুমের মরদেহ নিজ গ্রামের বাড়ী হাজীগঞ্জ উপজেলার তারালিয়া গ্রামের পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করা হবে।
মো. আনোয়ার হোসেনের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেন পাওয়ার সেলের ডিজি ইঞ্জি মোহাম্মদ হোসাইন, হাজীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ¦ অধ্যাপক আবদুর রশিদ মজুমদার,হাজীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহবুবুল আলম মজুমদার, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শাহ আলী রেজা আশরাফী, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতি, হাজীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মুন্সি মোহাম্মদ মনির, সাধারণ সম্পাদক খাজা সফিউল বাসার রুজমন।

Sharing is caring!

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *

shares